Opu Hasnat

আজ ১৯ জুলাই শুক্রবার ২০২৪,

ওড়িশার ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ৩০০ ছাড়ানোর আশঙ্কা আন্তর্জাতিক

ওড়িশার ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ৩০০ ছাড়ানোর আশঙ্কা

ওড়িশার ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতরে সংখ্যা ৩০০ ছাড়িয়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছে রেল কর্তৃপক্ষ।এদিকে প্রাথমিক তদন্তের পরে রেলের রিপোর্টে দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে সিগন্যালে ত্রুটির দিকেই আঙুল তোলা হয়েছে। তবে বিস্তারিত তদন্তে দুর্ঘটনার কারণ আরও স্পষ্ট হবে বলে রেল কর্তৃপক্ষের বক্তব্য।

ওড়িশার বালেশ্বরে করমণ্ডল এক্সপ্রেস দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ৩০০ ছুঁই-ছুঁই। সেই সংখ্যা ৩০০ পেরিয়েও যেতে পারে বলে মনে করছেন অভিজ্ঞেরা। শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত রেল সূত্রে বলা হয়েছে, নিহতের সংখ্যা ২৮৮। আহত ৮০০-র উপর। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, এখনও ধ্বংসস্তূপ থেকে দেহাংশ ঝুলছে। ধ্বংসস্তূপের তলাতেও চাপা পড়ে থাকতে পারে অনেক দেহ। ফলে নিহতের সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই আশঙ্কা। তবে সরকারি ভাবে রেল ‘উদ্ধারকাজ’ শেষ বলে ঘোষণা করেছে। শনিবার থেকেই শুরু হয়েছে পরিষেবা স্বাভাবিক করার উদ্যোগ। তবে তা যথেষ্ট সময়সাপেক্ষ বলেই মনে করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালের ১০ মে জ্ঞানেশ্বরী এক্সপ্রেসের ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ১৪৮ জনের। তার অনেক আগে ১৯৯৯ সালের ২ অগস্ট উত্তরবঙ্গের ইসলামপুরের কাছে গাইসালে রেল দুর্ঘটনায় রেলের সরকারি হিসাবে ২৮৫ জনের মৃত্যু হয়েছিল। বালেশ্বরের করমণ্ডল এক্সপ্রেসের এই দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ইতিমধ্যেই তা ছাড়িয়ে গিয়েছে। যদি মৃতের সংখ্যা ৩০০ পেরিয়ে যায়, তা হলে প্রাণহানির নিরিখে এই দুর্ঘটনা পূর্বভারতে সাম্প্রতিককালের মধ্যে সবচেয়ে বড় রেল দুর্ঘটনা হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। তথ্য- আনন্দবাজার