Opu Hasnat

আজ ১৬ জুন রবিবার ২০২৪,

বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন দুর্গাপুরে নেত্রকোনা

বঙ্গবন্ধুর জুলিও কুরি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন দুর্গাপুরে

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জুলিও কুরি শান্তি পদক প্রাপ্তির ৫০ বছর পুর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠান নানা আয়োজনের পালিত হয়েছে। রোববার উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে সর্বস্তরের অংশগ্রহনে এ অনুষ্ঠান পালিত হয়। 

এ উপলক্ষে রোববার সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্প স্তবক অর্পণ শেষে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিশুদের চিত্রাংকন, কবিতা আবৃত্তি ও বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শের উপর কুইজ প্রতিযোগিতা শেষে উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার মুহাম্মদ নাসির উদ্দিনের সঞ্চালনায় ইউএনও মোহাম্মদ রাজীব-উল-আহসান এর সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে আলোচনা করেন, প্রভাষক আবু সাদেক, অধ্যাপক আব্দুর রাশিদ, উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাতেমা তুজ জোহরা, আ‘লীগ নেতা বিপ্লব মজুমদার, উপজেলা আ‘লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো. শফিকুল ইসলাম শফিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল ওয়াহেদ, সোহরাব হোসেন তালুকদার প্রমুখ।  

বক্তারা বলেন, সারা জীবনের দর্শন আর বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়কত্বের প্রেক্ষাপটে বঙ্গবন্ধুকে জুলিও কুরি শান্তি পদক প্রদান করার জন্য বিশ্বশান্তি পরিষদের প্রেসিডেনশিয়াল কমিটির সভায়, ১৪০টি দেশের প্রায় ২০০ সদস্য উপস্থিত ছিলেন। তাঁরা সবাই একমত হওয়ায় বিশ্বশান্তি পরিষদ ১৯৭২ সালের ১০ অক্টোবর পদকপ্রাপক হিসেবে বঙ্গবন্ধুর নাম ঘোষণা করেন। আর পরের বছর ২৩ মে এশীয় শান্তি সম্মেলনের এক অনুষ্ঠানে সেই পদক বঙ্গবন্ধুকে পরিয়ে দেন পরিষদের তৎকালীন সেক্রেটারি জেনারেল রমেশচন্দ্র। 

সেই অনুষ্ঠানে রমেশচন্দ্র বলেছিলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলার নন, তিনি বিশ্বের এবং তিনি বিশ্ববন্ধু।’জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানুষের ন্যায্য অধিকার আদায়ে সারাজীবন সংগ্রাম করে গেছেন। তিনি বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় অনন্য ভূমিকা পালন করেন। কর্মের স্বীকৃতি হিসেবে বিশ্ব শান্তি পরিষদ বঙ্গবন্ধুকে ‘জুলিও কুরি’ শান্তি পদক প্রদান করে এবং এটি ছিলো বাংলাদেশের জন্যে প্রথম আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি। নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের বঙ্গবন্ধুর জীবনাদর্শ সম্পর্কে পড়ানোর জন্য আহবান জানানো হয়। আলোচনা শেষে উপজেলা শিল্পকলা একাডেমি বঙ্গবন্ধু শীর্ষক এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করে।