Opu Hasnat

আজ ৩০ জুলাই শুক্রবার ২০২১,

দামুড়হুদায় লকডাউনের প্রথম দিনে প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা, জরিমানা চুয়াডাঙ্গা

দামুড়হুদায় লকডাউনের প্রথম দিনে প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতা, জরিমানা

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলায় চলছে কঠোর লকডাউন। লকডাউন বাস্তবায়নে দামুড়হুদা উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ব্যাপক তৎপর হয়ে উঠেছে। সেই সাথে কাজ করছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সেচ্ছসেবক দল। বিভিন্ন স্থানে চালানো হচ্ছে ভ্রাম্যমান আদালত। উপজেলার সকল প্রবেশ পথে কাঠের গুড়ি ফেলে ও বাঁশ বেধে ব্যারিকেট দেওয়া হয়েছে। সকালের দিকে কিছু যানবাহন চলাচল করলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসনের উপজেলা নির্বাহী অফিসার, দিলারা রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহ সহ পুলিশ প্রসাশন মাঠে নামে। তারা বিভিন্ন প্রবেশ পথে অবস্থান নিয়ে যান বাহন চলাচল কন্ধ করে দেয়। এসময় যানবাহন চালকরা বিকল্প সড়ক ব্যবহার করতে থাকে। পরে ঐ সকল সড়কে পুলিশ প্রহরা বসানো হয়। থানা পুলিশ ও ফাড়ি পুলিশ ব্যাপক টহল জোরদার করেছে। উপজেলা থেকে কাউকে বের হতে বা উপজেলায় প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দিলারা রহমান, নাটুদা, জগোনাথপুর, হরিরামপুরসহ বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে সাস্ক ব্যবহার না করা ও সরকারী নির্দেশনা না মেনে দোকান খোলা রাখায় স্বাস্থ্য বিধির ১৮৬০এর ১৮৮ধারা ৭জনকে ১১শত টাকা জরিমানা করেন। একই ভাবে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুদীপ্ত কুমার সিংহ দামুড়হুদা উপজেলা সদর, দর্শনা কার্পাসডাঙ্গাসহ বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে মোটরসাইকেলের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় হেলমেট ও মাস্ক ব্যবহার  না করায় একই ধারায় ১০টি মামলায় ১৮জন কে জন ১৪হাজার টাকা জরিমানা করেন ও সকলকে সর্তক করে দেওয়া হয়। 

এদিকে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদি দোকান বা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সকাল ৬টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত খোলা থাকলে ও অন্যান্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় সচেতনা মুলক মাইকিং করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার দামুড়হুদার কোন রিপোর্ট না আসায় সোমবার পর্যন্ত  আক্রান্ত হয়েছে ৫৪০জন, স্বুস্থ্য হয়েছেন ৩৫১জন বর্তমানে হোম কুয়ারেনটাইনে ও প্রতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে আছে ১৮৯জন। এপর্যন্ত মারা গেছে ২১জন। সোমবার (১৪ জুন) উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির জরুরী সভা ডাকা হয়। এই সভায় চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক নজরুল ইসলাম সরকার প্রধান অতিথী হিসাবে উপস্থিত থেকে  উপজেলাকে মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকাল ৬টা থেকে ২৮ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত লকডাউন ঘোষনা করেন।এর আগে উপজেলার  বিভিন্ন সীমান্ত এলাকার ১৬টি গ্রাম লকডাউন করে দেওয়া হয়।