Opu Hasnat

আজ ২১ জুন সোমবার ২০২১,

দিরাইয়ে সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড দখল নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা সুনামগঞ্জ

দিরাইয়ে সিএনজি অটোরিক্সা স্ট্যান্ড দখল  নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা সদরের সিএনজি স্ট্যান্ডের দখল নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছেন সিএনজি মালিক ও শ্রমিক সমিতি। সুনামগঞ্জ জেলা সিএনজি চালিত অটোরিক্সা মালিক সমিতি রেজিষ্ট্রেশন নং ২৮৪২ ও শ্রমিক ইউনিয়ন রেজিষ্ট্রেশন নং ১৯২৬ এর আওতাভুক্ত দিরাই উপ-কমিটি নেতৃবৃন্দর মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে চলা বিরোধ এখন ভয়াবহ অবস্থা ধারন করেছে। যেকোন সময় উভয়পক্ষের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে যেতে পারে। দিরাই টু শ্যামারচর রোডে দিরাই সদর স্ট্যান্ডটিতে দুইপক্ষই অবস্থান করায় সাধারণ প্রতিনিয়ত যাত্রীরা হয়রানির শিকার হচ্ছেন। দিরাই সদর স্ট্যান্ডের মতো শ্যামারচর সিএনজি স্ট্যান্ডেও গত তিনদিন আগেও একই অবস্থা বিরাজমান ছিল। 

সরেজমিনে শ্যামারচর সিএনজি স্ট্যান্ড ঘুরে ও সাধারন যাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, এইড স্ট্যান্ডটি শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দের নিয়ন্ত্রণে থাকায় পরিবেশ কিছুটা শান্ত হওয়ায় যাত্রী ভোগান্তি তেমন একটা চোখে পড়েনি। 

এ বিষয়ে শ্যামারচর ও দিরাই সদর স্ট্যান্ডে আগত যাত্রীদের সাথে গণমাধ্যমকর্মীদের সরাসরি কথা হলে তারা জানান, আমরা সাধারন যাত্রীরা কি করবো, তারা তাদের স্বার্থ হাসিলের জন্য একে অন্যের সাথে বিরোধিতা করছেন। আর আমরা সাধারণ যাত্রীরা পড়েছি চরম ভোগান্তিতে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষের দেখা প্রয়োজন বলে মনে করেন তারা। 

এ ব্যাপারে সুনামগঞ্জ সিএনজি মালিক সমিতির কার্যকরী কমিটির সদস্য ইমামুল হক টিপু বলেন, পরিস্থিতি খুবই খারাপ। যে কোন সময় অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতে পারে। পাশাপাশি শ্রমিক ইউনিয়ন দিরাই উপ-কমিটির সাধারন সম্পাদক নাজমুল হুসেন বলেন, দিরাই সিএনজি স্ট্যান্ডের অবস্থা খুবই খারাপ। ফলে এখানে প্রশাসন জরুরীভিত্তিতে পদক্ষেপ না নিলে অনাকাংঙ্খিত ঘটনা ঘটতে পারে। 

এ ব্যাপারে দিরাই থানার অফিসার ইনচার্জ আজিজুর রহমানের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমরা এই বিষয়টি নিয়ে দু’পক্ষের সাথে দুইবার বৈঠক করে চেষ্টা করেছি কিন্তু আশানুরুপ কোন ফল পাওয়া যায়নি। তবে আইন শৃংখলার অবস্থার অবনতি হলে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর