Opu Hasnat

আজ ৯ ফেব্রুয়ারী বৃহস্পতিবার ২০২৩,

ব্রেকিং নিউজ

পাইকগাছায় ইট ভাটা উদ্ধারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন খুলনা

পাইকগাছায় ইট ভাটা উদ্ধারের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

পাইকগাছায় ইট-ভাটা জবর দখলের অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সোনালী বেগম নামে এক নারী। সোনালী বেগম উপজেলার পুরাইকাটী গ্রামের শাহিনুর রহমানের স্ত্রী। সোমবার সকালে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে লিখিত সংবাদ সম্মেলনে সোনালী বেগম বলেন, উপজেলার পুরাইকাটী মৌজায়-এনএসবি নামে একটি ইট ভাটা রয়েছে। ভাটাটি আমার স্বামী শাহিনুর রহমান দীর্ঘদিন পরিচালনা করে আসছিল। ঋণগ্রস্থ হওয়ার ফলে আমার স্বামী ভাটাটি পরিচালনার জন্য পুরাইকাটী গ্রামের মৃত পির আলী সরদারের ছেলে আছাদুল সরদার, ফরিদ সরদারের ছেলে মনিরুল সরদার, মৃত মান্দার সরদারের ছেলে শহিদুল সরদার ও মৃত তমেজ মোড়লের ছেলে মুনছুর আলী মোড়লের নিকট ৩৩ লক্ষ টাকায় বায়নাপত্র করে দেয়। পরবর্তীতে পাওনাদারদের মধ্যে কয়েকজন আমার স্বামীর নামে আদালতে মামলা করলে আমার স্বামী এলাকার বাইরে চলে যায়। এ সুযোগে বায়নাপত্র গ্রহীতা প্রতিপক্ষরা বেআইনী ভাবে ভাটাটি জবর দখল করে নেয়। এছাড়া তারা বায়নাপত্র বুনিয়াদে আদালতে ১৬৯/২১ ও ২০৩/২১ নং মামলা করে, যা চলমান রয়েছে। জবর দখলকারীরা বায়নাপত্রের ক্ষমতা বলে পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের নুরুল ইসলামের ছেলে মিরাজুল ইসলাম, ৩নং ওয়ার্ডের মৃত শওকত সরদারের ছেলে এসএম মুজিবর রহমান, ৪ং ওয়ার্ডের শেখ আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে শেখ রুহুল কুদ্দস, ৫নং ওয়ার্ডের সোহরাব আলী ও আলমতলা গ্রামের আমিন উদ্দীন সানার ছেলে হাবিবুর রহমান সানার নিকট ডিড প্রদান করেছেন। তারা কিভাবে ডিড দিয়েছেন তা আমাদের জানা নাই। তারা সকলে মিলে আমাদের এনএসবি ভাটাটি ফাইভ স্টার নাম দিয়ে পরিচালনা করার চেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। 

এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন গৃহবধু। অভিযুক্ত মুনছুর আলী গংরা জানান, মৌখিক, লিখিত চুক্তি ও আদালত থেকে মালিক হয়েছি।তার অভিযোগ ভিত্তিহীন।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর