Opu Hasnat

আজ ৮ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার ২০২২,

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করেপালপাড়াবাসী মাটির খেলনা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন নীলফামারী

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করেপালপাড়াবাসী  মাটির খেলনা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন

আসন্ন দূর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে সৈয়দপুর পালপাড়াবাসী তৈরি করছেন হরেক রকম খেলনা, কেউবা রোদে শুকাচ্ছেন এসব আর এসব করছেন রং। সামনে দুর্গাপূজার মেলা উপলক্ষে খেলনা তৈরির ধুম পড়েছে নীলফামারীর সৈয়দপুরের পালপাড়ায়। ছোট ছোট খেলনা তৈরির কারিগররা এখন মাটির পুতুল, ব্যাংক, বিভিন্ন ধরনের প্রাণী, ফল, ফুলের টব, ঘুরনি, টমটম গাড়ি, বাশেঁর বাঁশি তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন। গত দু’বছর ধরে করোনার কারণে ছোটবড় কোনো প্রকার মেলাই হয়নি এই অঞ্চলে। ফলে খেলনা তৈরির পরিবারগুলো অসহায় অবস্থায় দিন কাটিয়েছে।

এসব পাল পরিবার এবার অনেক আশা নিয়ে তৈরি করছে মাটির খেলনা। এদের কাজই হলো মাটির পণ্য তৈরি করা। মাটির পণ্য তৈরির পাশাপাশি এরা বিভিন্ন মেলার জন্য নানারকম খেলনা তৈরি করে থাকে। যা তাদের অতিরিক্ত আয়ের পথ সৃষ্টি করে। কিন্তু তারাও মেলা বন্ধ থাকার কারণে অতিরিক্ত আয় থেকে বঞ্চিত হয়েছে। কিন্তু দুর্গাপূজার মেলার জন্য তারা প্রচুর পরিমাণে খেলনা মজুত করে ফেলেছে। এখন শুধু অপেক্ষা মেলা শুরুর।

উপজেলার কাশিরাম ইউনিয়নের পালপাড়ার খেলনা কারিগর কার্তিক, হেমন্ত, সুসান্ত সুজন, নমিতা, লিপি রানী বলেন, গত দু’বছরে কোনো মেলা না হওয়ায় আমরা একেবারেই বেকার বসেছিলাম। দিনমজুরির চেষ্টা করেও সংসার চলাতে হিমশিম খেতে হয়েছে। এ সময় আমাদের যে সামান্য সঞ্চয় ছিলো তাও শেষ হয়ে গেছে। সামনে দুর্গাপূজা, শুনেছি এবার সব জায়গায় মেলা বসবে। আমরাও আশায় বুক বেধেছি। খেলনা তৈরির কাজে ব্যস্ত সময় পার করছি। এরইমধ্যে বিভিন্নস্থান থেকে পাইকাররা আসতে শুরু করেছেন।

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশনের (বিসিক) উপব্যবস্থাপক হুসনে আরা খাতুন বলেন, আমরা এসব ক্ষুদ্র কারিগরদের এসবের পাশাপাশি অন্য কিছু করারও পরামর্শ দিয়ে থাকি। কারণ শুধুমাত্র এই পণ্য তৈরি করে জীবিকা নির্বাহ করা কঠিন ব্যপার। এবারে নীলফামারীর সৈয়দপুরে ৮১টি দুর্গাপূজার মন্ডগুলোর আশেপাশে বিভিন্ন স্থানে মেলা বসবে বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।