Opu Hasnat

আজ ২৮ নভেম্বর সোমবার ২০২২,

কলেজ শিক্ষিকাকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক কুমিল্লা

কলেজ শিক্ষিকাকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

নকুমিল্লায় কলেজ শিক্ষিকা তাহমিনা আক্তার মুনাকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে স্বামী সালাউদ্দিন সুমনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা হয়েছে। মুনার ভগ্নিপতি মো. তরিকুল ইসলাম বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। 

বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) ওই মামলায় আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত সুমনের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন। মুনা কুমিল্লা মডেল কলেজের বাংলা বিষয়ের প্রভাষক ছিলেন এবং তারা নগরীর রেইসকোর্স এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। 

মুনার পারিবারিক সূত্র ও অভিযোগে জানা গেছে, কুমিল্লা নগরীর রেইসকোর্স এলাকার ভাড়া বাসায় গত ৩১ আগস্ট রাতে অগ্নিদগ্ধের পর তাহমিনা আক্তার মুনাকে শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৪ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। এদিকে ওই রাতে চুলায় আগুন জ্বালাতে গিয়ে কেরোসিনের বোতল গায়ে পড়ে কলেজ শিক্ষিকা মুনা অগ্নিদগ্ধ হন বলে তার স্বামী সুমন প্রচার করে আসছিলেন। এ মৃত্যুর ঘটনায় গত মঙ্গলবার গভীর রাতে সুমনকে একমাত্র আসামি করে কুমিল্লা কোতয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন মুনার ভগ্নিপতি মো. তরিকুল ইসলাম। 

আদালতের পুলিশ পরিদর্শক মুজিবুর রহমান জানান, এ মামলায় বৃহস্পতিবার আদালতে জামিন চাইতে ১ নম্বর আমলী আদালতে হাজির হলে মুখ্য বিচারিক হাকিম মাজহারুল হক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

মামলার বাদি মো. তরিকুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, প্রেম করে ২০১৭ সালে মুনা ও সুমনের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে সাফা নামে আড়াই বছর বয়সী এক কন্যা সন্তান রয়েছে। সুমনের বাড়ি কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলায় এবং মুনার বাবার বাড়ি কুমিল্লা নগরীর পাথুরিয়াপাড়ায়। একাধিক মেয়ের সঙ্গে সুমনের সম্পর্ক ছিল। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ লেগেই থাকতো। 

মুনার বড় বোন মাসুমা খাতুন সাংবাদিকদের বলেন, তার বোন হাসপাতালে থাকতে তাকে সব বলে গেছে। ওই দিন রাতে সুমন কেরোসিন দিয়ে আগুন লাগিয়ে দেয় মুনার শরীরে। তিনি বোনের হত্যার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। 

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. হানিফ সরকার বলেন, মামলার অভিযোগসহ তদন্তে অনেকের বক্তব্য নেওয়া হচ্ছে। সুমনকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে আবেদন করা হবে।