Opu Hasnat

আজ ১২ আগস্ট শুক্রবার ২০২২,

ব্রেকিং নিউজ

মোরেলগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষ

ভাইয়ের স্ত্রীর মামলায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে ভাই, বোন ও ভগ্নিপতি বাগেরহাট

ভাইয়ের স্ত্রীর মামলায় পালিয়ে বেড়াচ্ছে ভাই, বোন ও ভগ্নিপতি

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে খাউলিয়া ইউনিয়নে ছোট ভাইয়ের কবলাকৃত সম্পত্তিতে বড় ভাইয়ের ঘর তোলা নিয়ে সংঘাতে গুরুতর আহত একই পরিবারের দুই গ্রুপের ৬ ভাই বোন। ভাইয়ের স্ত্রীর মামলায় ছোট ভাই কাওসার, ৩ বোন ও ভগ্নিপতি আসামী হয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ঘটনাটি ঘটেছে ১৯ জুন বিকেলে উপজেলার মানিকজোর গ্রামে। 

মারপিটে গুরুত্বর আহত অবস্থায় বড় ভগ্নিপতি জাকির (৬৫) ও শ্যালক হায়দার আলী হাওলাদার (৪৭) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে এবং এ ঘটনায় মারপিটে আহত অপর ৪ জন প্রাথমিক চিকি সা নিয়ে সুস্থ্য হয়েছে। 

মা হায়াতোন বেগম জানান, ছোট পুত্র কাওসারের কবলাকৃত জমিতে বড় ভাই হায়দার ও মেঝভাই প্রবাসী জিহাদের স্ত্রী শাহিনুর আক্তার পাকা ঘর নির্মাণে বাধা দিলে এ মারপিটের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় ও অভিযোগসূত্রে জানা গেছে, উপজেলার খাউলিয়া ইউনিয়নের মানিকজোড় গ্রামের মৃত. রুহুল আমীন হাওলাদারের পুত্র মো. কাওসার আলী তার পিতার কাজ থেকে ২০১৫ সালে ৫০ শতক জমি ক্রয় করেন। পিতার নিকট হইতে কবলাকৃত এ সম্পত্তি কাওসারের ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় অপর ২ ভাই হায়দার ও জিহাদ বাধা দিলে স্থানীয়ভাবে একাধীকবার সালিশ বৈঠকে কাওসারের কবলা দলিল মোতাবেক স্বত্ব প্রাপ্ত ও অন্য ভাই বোনদের মধ্যে বাকী সম্পত্তি ওয়ারিশক্রমে বন্টন হয়। ইউপি চেয়ারম্যানের সালিশ বৈঠকের সিদ্ধান্ত কাওসার, তার মা ও ৩ বোন মেনে নিলেও অপর ২ ভাই হায়দার ও জিহাদ বিষয়টি না মানায় এ বিপত্তির সৃষ্টি হয় বলে বড় বোন সালমা বেগম জানান। 

এ ব্যাপারে কাওসার হাওলাদারের কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন তার বড় ভাই ও মেঝ ভাইয়ের স্ত্রী সম্পত্তি ভোগ দখলে নেওয়ার চেষ্টা করলে সংঘাতময় পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। সমাধানের লক্ষে কাওসার স্থানীয় এমপি এ্যাড. আমিরুল আলম মিলনের কাছে আবেদন করেন। এমপি বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইদুর রহমানের উপর দ্বায়িত্ব দিলে চেয়ারম্যান বিষয়টি নিয়ে একাধীকবার সালিশ বৈঠকে বসে সিদ্ধান্ত দিলে তা হায়দার ও জিহাদের স্ত্রী অমান্য করে ওই জমিতে বহিরাগত মাস্তান প্রকৃতির লোকজন নিয়ে পাকাইমারত নির্মান কাজ অব্যহত রাখে। এতে বাধা দিলে এ সংঘাতের সৃষ্টি হয়। 

কাওসার আরো জানান চেয়ারম্যানের সিদ্ধান্ত অমান্য করে সংঘতের ঘটনা ঘটলেও নির্মান কাজ অব্যহত থাকায় তিনি বাদী হয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদলত বাগেরহাটে ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারায় মিস মামলা নং- ৯৯৯ দায়ের করলে আদালত মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশকে শান্তি শৃঙ্খালা রক্ষার নির্দেশ দেন। পুলিশ উভয়পক্ষকে শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষাসহ স্ব স্ব অবস্থানে থাকার নোটিশ প্রদান করলেও হায়দার ও জিহাদের স্ত্রী তা অমান্য করে দিনে ও রাতের আধারে নির্মান কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মো. সাইদুর রহমানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন বিরোধীয় ৩৩ শতক জমির এক পার্শ্বে জিহাদের পাকা ইমারতের ভিত থাকায় পথের যায়গা রেখে অর্ধের করে জমি কাওসার ও প্রবাসী জিহাদকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত অমান্য করে জিহাদের স্ত্রী শাহিনুর আক্তার ও হায়দার সম্পূর্ন জমি দখলের চেষ্টা করলে এ ঘটনার সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় আহত কাওসার ও হায়দারের বড় বোন সালমা বেগম বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।