Opu Hasnat

আজ ২১ মে শনিবার ২০২২,

যাত্রীবাহি অটোকে ট্রেনের ধাক্কা : নিহত ৪ গুরুতরও আহত ৫ নীলফামারী

যাত্রীবাহি অটোকে ট্রেনের ধাক্কা : নিহত ৪ গুরুতরও আহত ৫

সৈয়দপুরের অদূরে নীলফামারীর সোনারায় ইউনিয়নের দারোয়ানি এলাকায় রেলক্রসিং না থাকায় ট্রেন দূর্ঘটনা ঘটেছে বলে এলাকাবাসী জানান। বুধবার (২৬ জানুয়ারি) খুলনা থেকে ছেড়ে আসা (রাতে) সীমান্ত এক্সপ্রেস (সকালে রুপসা হয়ে) সৈয়দপুর হয়ে চিলাহাটি যাওয়ার পথে সোনারায় ইউনিয়নের টেক্সটাইল ঘুনটি শখের বাজার রেলক্রসিং নামক স্থানে একটি যাত্রীবাহি অটোকে ধাক্কা দিলে অটোতে থাকা ৯ যাত্রীর মধ্যে ৪ জন নিহত হয়েছে। স্থানীয়রা ছয় জনকে উদ্ধার করে নীলফামারী সদর হাসপাতাল ও রংপুর হাসপাতালে নিয়ে যান। নিহতরা সকলে উত্তরা ইপিজেডের শ্রমিক বলে জানা যায়।

সৈয়দপুর রেলওয়ে জেলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রহমান বিশ্বাস ৪জন যাত্রী নিহতের খবর নিশ্চিত করে জানান, কুয়াশার কারনে ইজিবাইক চালক ট্রেনটি দেখতে না পেয়ে এ দূর্ঘটনাটি ঘটতে পারে বলে প্রাথমিক ধারনা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।

ঘটনাস্থলে মৃত্যুবরণ করেন সোনারায় ইউনিয়নের দারোয়ানি এলাকার ধনীপাড়ার আশরাফ আলীর স্ত্রী শেফালী বেগম (৩৫)। স্থানীয়রা নীলফামারী হাসপাতালে নেযার পথে একই এলাকার কোরানীপাড়ার বেলাল হোসেনের স্ত্রী ছায়া বানু (২৬) ও ধনীপাড়ার মোশাররফ হোসেন বদির স্ত্রী রুমা আকতার (২৫) এবং রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে ধনীপাড়ার আরমান হোসেনের স্ত্রী মিনারা আকতার (২২) মারা যায়।

এ দূর্ঘটনায় আহতরা হলেন ইজিবাইক চালক আপন হোসেন (২৮), নাজমিন আকতার (৩০), মিনা আকতার (৩০), রওশন আরা (৩৪) ও রোমানা আকতার (২৮)। এদের সকলের বাড়ি দারোযানীএলাকায়।

সোনারায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম শাহ এ মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করে জানান, ঘন কুয়াশার কারণে এ দূর্ঘটনাটি ঘটতে পারে। তাছাড়া এ রেলপথে অরক্ষিত রেলক্রসিং থাকায় দিন দিন দূর্ঘটনার সংখ্যা বাড়ছে।